স্ত্রী’র আচরণে অ’তিষ্ঠ হয়ে স্বা’মী তার শাশুড়িকে ফেসবুকে মেসেজ করল : আপনার প্রোডাক্টে জ’ন্মগত ক্রুটি আছে,যা

আমাকে ডেলিভা’রির সময় জা’নানো হয় নাই,আমি হয়রান হয়ে যাচ্ছি। প্লিজ মাল ফেরত নিয়ে ভালো মাল পাঠান, আর সেটা যেন এর পরের ব‍্যাচের হয়।

মেসেজ পেয়ে শাশুড়ির জবাব : মালের ওয়ারেন্টি শেষ আমা’দের মালের রিফান্ড অথবা এক্সসেঞ্জ অফার নেই। মাল বুঝে নেওয়ার পর মাল ঠিকঠাক ব‍্যবহার করার দায়িত্ব গ্রাহকের। ডেলিভা’রির সময় মালের ব‍্যবহারবিধি আম’রা গ্রাহককে ভালো’ভাবে বুঝিয়ে ছিলাম।

মেশিন সব পুরান হয়ে গেছে, ফ‍্যাক্টরি প্রায় ব’ন্ধ হয়ে গেছে,এখন আর নতুন ভাবে কোন প্রোডাকশন হচ্ছে না। তাই নতুন মাল পা’ঠানো র সুযোগ নাই, বতর্মান মালটাই একটু বুঝে সুজে সা’বধানতার সাথে ব‍্যবহার করুন। অভ‍্যস্ত হওয়ার পর সব ঠিক হয়ে যাব’ে। ভালো থেকো সু’খি হও।

আমা’র মতো অস’ম্মানের বিদা’য় যেন ওদের ৪জনের না হয়: মাশরাফি

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ভবি’ষ্যৎ প’রিকল্পনায় নেই টাইগারদের ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তাকে যেভাবে বিদা’য় দেওয়া হয়েছে সেভাবে যেন বাকি ক্রিকেটারদের না দেওয়া হয় বোর্ডের প্রতি সেই অনুরো’ধ জা’নিয়েছেন তিনি। বিগত কয়েকদিন ধ’রেই বিভিন্ন সাক্ষাতকারে বোর্ডের ক’র্মকর্তাদের বি’রুদ্ধে অ’ভিযোগ তুলেছেন মাশরাফি।

আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপে বাজে পারফরম্যান্সের পর তাকে ঘিরে বোর্ড ক’র্মকর্তাদের কটূক্তি মন্তব্যও তার এসেছে বলে জা’নিয়েছেন মাশরাফি। এমনকি তার অবসর নিয়েও জল কম ঘোলা করেনি দুই নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু এবং হাবিবুল বাশার সুমন। তাকে নিয়ে দুই নির্বাচকের বি’রুদ্ধে মিডিয়ায় মিথ্যাচারের অ’ভিযোগও আনেন তিনি।

তবে তাকে বোর্ড থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদা’য় দেওয়ার প্রস্তাবের অপেক্ষা করেছিলেন তিনি। সেটি না হয়ে উল্টো শেষদিকে অ’পবাদ নিয়েই একপ্রকার ‘অবসর’ই নিয়েছেন মাশরাফি। তবে তাকে যেভাবে অস’ম্মান করে বিদা’য় দেওয়া হয়েছে সেটি যেন বাকি চার সিনিয়রের স’ঙ্গে না হয় বোর্ডের প্রতি সেই অনুরো’ধ করেন মাশরাফি।

স’ম্প্রতি দেশের টিভি চ্যানেল ‘ডি’বিসি নিউজকে’ দেওয়া সাক্ষাতকারে এসব বলেন তিনি। “ক্রিকেট থেকে বিদা’য়ের সময় আমাকে যে সম্মানহানি করা হয়েছে সেটা তো আর ফি’রে পাব না। কিন্তু আশা করি সামনে যারা বিদা’য় নিবে ক্রিকেট থেকে সাকিব, তামিম, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহ- তাঁদের সময়টাও ধীরে ধীরে চলে আ’সছে।

তাঁদের বিদা’য়টা যেন অ’ন্তত আ’নন্দঘন পরিবেশে হয় এবং এই পরিবেশটা যেন আমাদের ক্রিকে’টে তৈরি হয়। অনেক ক্রিকেটারই রয়েছেন যারা ক্যারিয়ার জুড়ে দাপটের স’ঙ্গে পারফর্ম করেও বিদা’য়বেলা স্মরণীয় হয়নি। এটি নিয়ে মাশরাফির মনে আক্ষেপ থাকলেও নিজে’র ভাগ্যের লিখনকে মেনে নিচ্ছেন তিনি। আমা’র সাথে যোগাযোগ করা বিসিবির এখন জরুরী না।

কারণ না আমি ক্রিকেট বোর্ডের বেতনভুক্ত ক্রিকেটার, না আমি ক্রিকেট বোর্ডের কোন ক’র্মকর্তা। বিদা’য় হয়তোবা স্মরণীয় হয় না। আমি মা’রাও যেতে পারতাম। সেখেত্রেও তো দৃ’শ্যপট অন্যরকম হতে পারত। আমা’র সাথে যোগাযোগ করলেই যে আমি চুপ হয়ে যাব তা না কিংবা আমা’র সাথে যোগাযোগ করলেই যে তারা ঠিক হয়ে যাবে ব্যাপারটা তেমন না। আপনার আউটকাম নির্ভর করছে সামনে কিভাবে চলবে।

About admin

Check Also

যেভাবে ভেস্তে গেল বিএনপির উদ্যোগ!

২০ দলীয় জোট থেকে জামায়াতকে দূরে ঠেলতে বিএনপির একটি অংশ অনেকদূর অগ্রসর হলেই দলের অন্য …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *