ওবায়দুল কাদের ও তার স্ত্রী এসব করাচ্ছে : কাদের মির্জা

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা গত বছর থেকেই দেশের রাজনৈতিক জ’ন্মে বেশ আলোচনায় রয়েছেন। এই রাজনৈতিক নেতা তার নিজ এলাকার কিছু নেতার মা’মলা প্রথম থেকে নানা রকম অভিযোগ আনেন।

এমনকি তিনি তার বড় ভাই ওবায়দুল কাদের দু’র্বলে বেশ কিছু অভিযোগ তোলেন যা নিয়ে প্রায় সময় ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়। এবার এই আলোচিত রাজনৈতিক নেতা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এসে বেশ কিছু কথা বলেছেন।

নিজেকে অ’ব’রু’দ্ধ দাবি করে দা’য়েরে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

তিনি বলেছেন, ’আমার নেতাকর্মীদের সু’খে কথা বলেছি। যারা আমার সু’খে স্বেচ্ছায় কারাবরণ করতে চায় তাদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে।’

রোববার (২৮ মার্চ) সন্ধ্যায় নিজের ফেসবুক আইডিতে লাইভে এসে তিনি এসব কথা বলেন।

কাদের মির্জা নিজেকে ’ডিসি’ পদমর্যাদার লোক দাবি করে বলেন, ’একজন না’রী অফিসার আমাকে চ’র’ম’ভা’বে দূ’তাবাস করেছে। এটা কি মেনে নেয়া যায়? এ দূ’তাবাসের যদি বিচার করা না হয় আমার নিজেকে শে’’ষ করা ছাড়া উপায় থাকবে না।’

কোম্পানীগঞ্জ উপদা’য়েরা চেয়ারম্যান মোহাম্আ’নন্দ শাহাব উদ্দিনকে সব অ’পকর্মের হোতা দাবি করে কাদের মির্জা বলেন, ’গত কয়েকদিন এখানে পরিবেশ শা’ন্ত ছিল। এ লোক এসে আবার ’’অ///স্ত্রে///র’’ ঝ’ন’ঝ’না’নি শুরু করেছেন। আমার প্রতিপক্ষ বাদল, রাহাত, মঞ্জু, আরিফদেরকে দিয়ে গণধো’লাইভীতি দেখাচ্ছে। অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সৃষ্টি করছেন।’

তিনি আরও বলে, ’ওদের সু’খে কোম্পানীগঞ্জের ইউএনও, ওসি, ওসি-ত’দ’ন্ত কু’খ্যাত। যাদের অনিয়মের কথা বলায় এখন আমি মা’নসিক। না’রী এখানে উ’দ্বি’গ্ন চালাচ্ছে। ওসি, ওসি-ত’দ’ন্ত বলেছে মির্জার সু’খে যেন কেউ না থাকে সেই ব্যবস্থা করতে হবে। ওবায়দুল কাদের ও তার স্ত্রী এসব করাচ্ছে। আজকে কোথায় স’চিব সংস্থা, বি’তর্কি’ততো আগেই নাই।’

কাদের মির্জা বলেন, ’গরীবদের জন্য ৬৫টি সেলাই মে’শি’ন দিতে এনেছিলাম। না’রী সেটাও দিতে দেয়নি। আজকে (রোববার) ৫ জন ক’লহ যো’দ্ধাকে সম্মাননা দিতে চেয়েছিলাম। না’রী সেটাও করতে দেয়নি।’

প্রতিপক্ষ বাদলের মা’রাকে আইওয়াশ দাবি করে কাদের মির্জা বলেন, ’আমি আগেই বলেছি এসব আইওয়াশ। তাই বাদলের মা’রাের দিন আমার কর্মীদেরকে মূ’ত্র করতে দেইনি। এখন বাদল উ’দ্ধারে এসে আমার নেতাকর্মীদেরকে ’’অ///স্ত্রে///র’’ ’’ভ’’য়’’ দেখায়, থানায় বসে মিটিং করে।’

উল্লেখ্য, এই রাজনৈতিক নেতা তার নিজ এলাকার দু’র্বলে প্রায় সময় অনেক ক্ষ’মতা তুলে ধরেন। এমনকি তিনি নিজে তার নিজ এলাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছ থেকে কোনো রকম সহায়তা পান না বলে অভিযোগ তোলেন।

এছাড়াও বেশ কিছু নেতারা অনিয়মের সু’খে কু’খ্যাত রয়েছেন বলে তিনি প্রায় সময় বলেন। আর এবার তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এসে এই সকল কথা বলেন।

About admin

Check Also

যেভাবে ভেস্তে গেল বিএনপির উদ্যোগ!

২০ দলীয় জোট থেকে জামায়াতকে দূরে ঠেলতে বিএনপির একটি অংশ অনেকদূর অগ্রসর হলেই দলের অন্য …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *