কাদেরের ঘড়ি নিয়ে যা বললেন মির্জা ফখরুল

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের হাতঘড়ি নিয়ে কথা বলেছেন বিএনপি মহাস’চিব মির্জা ফখরুল ই’স’লা’ম আলমগীর। তিনি ওবায়দুল কাদেরের কথায় বিনোদন পান বলেও মন্তব্য করেন।

শনিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাব মি’লনায়তনে বিএনপির স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন চিকিৎসা ও সেবা কমিটি আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কখা বলেন।

‘ফ্রি চিকিৎসা সেবা, বিনামুল্যে ও’ষুধ বিতরণ ও স্বেচ্ছায় র’ক্তদান কর্মসূচি উদ্বোধ’ন’ উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এতে মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রতিদিন কমেন্ট করেন, কথা বলতে থাকেন। গতকালও বলেছেন। তার কথায় আম’রা সবাই বিনোদন পাই ও কৌতুক বোধ করি। উনার কথা বলার ভ’ঙ্গি খুব সুন্দর। তার বসে থাকার ভ’ঙ্গিটাও খুব সুন্দর।

তিনি যে আসনে বসে কথা বলেন, সেটাও খুব সুন্দর। তিনি অ’ত্যন্ত সুদর্শন মানুষ। চ’মৎকার কোট ও পাঞ্জাবি পড়েন। আর পত্র পত্রিকায় বের হয়েছে যে, তার ঘড়িগুলোর দাম নাকি ৩৬ লাখ, ৫২ লাখ এবং ১ কোটি, এই রকম দামের। কিন্তু কত দাম সেটা আম’রা জানি না।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বিএনপির আ’ন্দোলন স’ম্প’র্কে কটাক্ষ করেছেন উল্লেখ করে তিরি বলেন, প্রত্যেক দিন তিনি বিএনপিকে নিয়ে কথা বলেন। আর বলেন যে, বিএনপি নাই।

বিএনপি নাই, তাহলে প্রত্যেকদিন কেন বিএনপিকে নিয়ে কথা বলেন? এজন্য বলেন, কারণ বিএনপি আছে, খুব ভালো করেই আছে এবং আপনাদের ও’পর চড়াও হয়ে বসে আছে বলেই বিএনপিকে নিয়ে কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, আপনাদের তো লজ্জা হওয়া উচিত। বিশেষ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সাহেবের। আপনার এলাকায় কি হচ্ছে? আজকে পত্রিকায় এসেছে, সেখানে যে দুটি খু’ন হয়েছে- তাদের মধ্যে একজনের ( শ্র’মিক) ভাই মা’ম’লা করতে গিয়েছিলেন। কিন্তু পু’লিশ মা’ম’লা নেয়নি।

কাদের মির্জার (ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই) বিপক্ষে মা’ম’লা নেয় নাই। কারণ তিনি তো শুধু কাদের মির্জা নন। তিনি বাংলাদেশের দ্বিতীয় শ’ক্তিশালী ওবায়দুল কাদের সাহেবের ভাই। কোথায় আপনার সুবিচার? কোথায় গণতন্ত্র ও ন্যায়ের শাসন?

About tanvir

Check Also

শেখ হাসিনার ওপর আল্লাহর রহমত আছে: শামীম ওসমান

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান বলেছেন, দেশকে অস্থিতিশীল করতে চূড়ান্ত ষড়যন্ত্র চলছে। আমি তো গত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *