মানুষকে ‘বিশ্বা’স’ করে ম’র্মান্তিক ভাবে প্রা’ণ দিল এই হাতি

ভা’রতের কেরালায় অ’ন্তঃসত্ত্বা এক হাতিকে নৃশং’স ভাবে হ ত্যা করা হয়েছে। বুধবার( ২৭ মে) খু’ন করা হয় হাতিটিকে। আনারসের মধ্যে বাজি ভরে খেতে দেওয়া হয় তাকে। এরপরই ওই হাতির মুখের মধ্যে ফে’টে যায় বাজিটি। ম’র্মান্তিক ভাবে মা’রা যায় হাতিটি।

ভা’রতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জা’নায়, উত্তর কেরলের মালাপ্পুরমের এক বন বিভাগের ক’র্মক’র্তা সোশ্যাল মিডিয়ায় এই হ’ত্যাকা’ণ্ডের বিশদ বিবরণ দেওয়ার পরে তা ক্রমশ ছ’ড়িয়ে প’ড়ে। তাঁর পোস্ট থেকে জা’না যায়, হাতিটি জ’ঙ্গল থেকে বেরিয়ে এসে কাছের গ্রামে উপ’স্থিত হয় খাবারের স’ন্ধানে।

সে পথ দিয়ে হাঁটার সময় তাকে আনারস খেতে দেয় স্থা’নীয় বাসিন্দারা। ফেসবুকে মোহন কৃষ্ণন ন‌ামের ওই ক’র্মক’র্তা লেখেন, ‘‘ও সবাইকে বিশ্বা’স করেছিল। আনারসটি খাওয়ার পরে যখন তার মুখের মধ্যে সেটিতে বি’স্ফোরণ হল ও নিশ্চয়ই শি’উরে উ’ঠেছিল। নিজেকে নিয়ে ভে’বে নয়, বরং ওর শ’রীরে বেড়ে ওঠা প্রা’ণ, যে আরও ১৮ থেকে ২০ মাস পরে ভূমি’ষ্ঠ হত তাকে নিয়ে।”

বি’স্ফোরণটি এত ব্যা’পক ছিল যে, হাতিটির জিভ ও মুখ ভ’য়ঙ্কর ভাবে চো’টপ্রা’প্ত হয়। হাতিটি য’ন্ত্রণা ও খি’দেয় হাতিটি গ্রামের পথে ছু’টতে থাকে। কিন্তু এই চ’রম অ’স্বস্তির মধ্যেও সে কোনও বাড়ি ভাঙেনি। কাউকে আ’ক্রমণও করেনি। ওই ক’র্মক’র্তা তাঁর পোস্টে একথা জা’নিয়েছেন।

পরে য’ন্ত্রণার উপশম পেতে সে স্থা’নীয় ভেলিয়ার নদীতে নেমে যায় পানি খেতে। তাকে পানি থেকে উ’দ্ধার ক’রতে আরও দুই হাতিকে পা’ঠায় বন দফতর। কিন্তু নিজে’র অব’স্থান থেকে নড়েনি হাতিটি। এরপর ২৭ মে বিকেল চারটেয় সে মা’রা যায়। পরে জ’ঙ্গলের মধ্যে ক’বর দেয়া হয় তাকে।

সুন্দরী না’রীকে লিফট দিতে গিয়ে সবকিছু হারালেন মোটরসাইকেল চালক

প্রথমে সুন্দরী মে’য়ে রাস্তায় দাঁড় করিয়ে লি’ফট চাওয়া হয় মোটরসাইকেল চালকের কাছে। চালক লিফট দিতে রাজি হলে তরুণী চালককে নিয়ে যায় নির্দিষ্ট বাসায়।

তারপর বাসায় চা খাওয়ানোর কথা বলে ভে’তরে ডে’কে নিয়ে আ’ট’কে রেখে সহযোগীরা মিলে মোটরসাইকেলসহ স’র্ব’স্ব লু’টে নেয়।

এমনই একটি অ’ভিনব প্র’তা’রক চ’ক্রের সদস্যকে গ্রে’ফতার করেছে চট্টগ্রামের পাহাড়তলী থানা পু’লিশ। অন্যদের গ্রে’ফতা’রে অ’ভি’যান অব্যাহত রয়েছে। সোমবার নগরীর পাহাড়তলী থানার দক্ষিণ কাট্রলি রূপালী আবাসিক এলাকার একটি বাসা থেকে ওই প্র’তার’ক চ’ক্রের প্রধান ওমর ফয়সাল রনিকে (২২) গ্রে’ফতার করার কথা জানান পাহাড়তলী থানার ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান ইমাম।

ওসির ভাষ্য, সম্প্রতি আগ্রাবাদ এলাকায় আসাদুজ্জামান সুমন নামের এক তরুণের কাছে বাসায় পৌঁছে দেয়ার জন্য লিফট চান এক সুন্দরী তরুণী। পরে সুমন লিফট দিতে রাজি হলে তাকে একটি নির্দিষ্ট বাসার সামনে নিয়ে প্র’তারণা’র কৌশল হিসাবে বাড়ির ছাদে চা খেয়ে যাওয়ার অফার করে ওই তরুণী।

মোটরসাইকেল চালক সুমন রাজি হলে তাকে ছাদে নিয়ে আগে থেকে অপে’ক্ষমান ওই তরুণীর সহযোগীরা এই তরুণকে আ’ট’ক করে তার মোটরসাইকেল, মোবাইল নগদ ১৭ হাজার টাকা ও সাথে থাকা কয়েকটি ব্যাংকের ডেবিট কার্ড ও ক্রেডিট কার্ড ছি’নি’য়ে নেয়। পরে এটিএম কা’র্ড থেকে আরো নগদ ১২ হাজার টাকা উ’ত্তো’লন করে নেয়।

এই ঘ’টনায় থানায় মা’ম’লা হলে পু’লিশ অনুস’ন্ধানে এই চ’ক্রকে চি’হ্নি’ত করতে স’ক্ষ’ম হয়। সোমবার চ’ক্রের হোতা ওমর ফয়সাল রনিকে গ্রে’ফতার করে এবং মা’ম’লার বাদি সুমনের কাছ থেকে ছি’নি’য়ে নেয়া মোটরসাইকেলটিও উ’দ্ধা’র করতে স’ক্ষ’ম হয়। এই প্র’তার’ক চ’ক্রের অন্যন্য সদস্যদেরও গ্রে’ফতার করতে পু’লিশ চেষ্টা চা’লিয়ে যাচ্ছে বলেও জানান ওসি হাসান ইমাম। সূত্র : ইউএনবি।

About tanvir

Check Also

যেভাবে ভেস্তে গেল বিএনপির উদ্যোগ!

২০ দলীয় জোট থেকে জামায়াতকে দূরে ঠেলতে বিএনপির একটি অংশ অনেকদূর অগ্রসর হলেই দলের অন্য …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *