ইমরান স’রকারকে তালাক দিল সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নাহিদের মেয়ে

গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ স’রকারের স’ঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের কন্যা নাদিয়া নন্দিতা ইসলামের বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রীর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মে’য়ের সম্মতিক্রমে তিন মাস আগে বিবাহবিচ্ছেদ হয়।

উভ’য় পরিবারের মধ্যে বি’ষয়টি গো’পন ছিল। মন্ত্রী আজ সোমবার বি’ষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে জানান। সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে অনানুষ্ঠানিক আলোচনায় একাধিক মন্ত্রী অভিযোগ করেন যে, কোটা সংস্কারের আন্দোলনের প্রধান ইন্ধ’নদাতা ইমরান এইচ স’রকার।

জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, উ’স্কানিদাতাদের অবশ্যই শা’স্তি দিতে হবে, সে যে-ই হোক না কেন। ইমরান আর আমার মে’য়ের স্বা’মী নন। তিন মাস আগেই পারিবারিকভাবে তাদের বিচ্ছেদ হয়েছে।

এ বি’ষয়ে ইমরান এইচ স’রকারের মন্তব্য জানতে চাইলে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি । তিনি বলেন, আপনারা ইতোমধ্যে বি’ষয়টি জেনেছেন। ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর পারিবারিকভাবে মন্ত্রীকন্যা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষাতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নাদিয়ার স’ঙ্গে বিবাহবন্ধ’নে আবদ্ধ হন ইমরান এইচ স’রকার।

প্রস’ঙ্গত, ২০১৩ সালের ৫ ফেব্রুয়ারিতে গণজাগরণ মঞ্চ গঠনের পর থেকে মুখপাত্রের দায়িত্ব পালন করছেন ইমরান এইচ স’রকার। এরপর থেকে বাংলাদেশে আলোচিত একটি মুখ চিকিৎসক ইমরান এইচ স’রকার।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে এমবিবিএস পাস করেন কুড়িগ্রামের স’ন্তান ইমরান। ছাত্র থাকাবস্থায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যুক্ত ছিলেন তিনি।

বিয়ে করতে ৫৬৫ কিলোমিটার পাড়ি দিলেন ‘পু’লিশ কর্মকর্তা’

বিয়ে করতে ৫৬৫ কিলোমিটার পাড়ি দিলেন ‘পু’লিশ কর্মকর্তা’

তিনি দেখতে যেন ব’লিউড নায়িকাদের চেয়ে সুন্দর। তাকে নিয়ে এখন চলছে তুমুল আ’লোচনা। কারণ তিনি বিয়ে করতে ৫৬৫ কি.মি পাড়ি দি’য়েছেন। কে এই সু’ন্দরী। জেনে নিন তার সম্প’র্কে।তিনি বুদ্ধিমতী এবং সুন্দরী।

অংকের কঠিন স’মস্ত সমস্যা নি’মেষে পরীক্ষা খাতায় সমাধান করে ফে’লেন।শুধু তাই নয় ইংরেজি, ভূগোল, ইতিহাস, দেশের সংবিধান প্রায় সমস্ত বি’ষয়েই তার জ্ঞান ঈর্ষণীয়। বইয়ের পাতায় তার অবাধ বি’চরণের পা’শাপাশি সোশ্যাল মি’ডিয়াতেও পরিচিত মুখ তিনি।

ইনস্টাগ্রামে তা’কে দেখে যে কেউ কোনো টিকটক তারকা কিংবা বলিউড তারকা বলে ভু’ল করে বসতেই পারেন। কিন্তু এগুলোর কো’নোটিই নন তিনি। তিনি ভারতের বি’হারের একজন আইপিএস অ’ফিসার মানে পু’লিশ কর্মকর্তা। নাম নভজোৎ সিমি।

২০২০ সালে এই প’রীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন তিনি। এর আগে পিসিএস (পাঞ্জাব সিভিল সার্ভিস) অ’ফিসার হিসাবে কাছে যোগ দি’য়েছিলেন তিনি। তিনি পাঞ্জাবেরই মে’য়ে। পাঞ্জাবের তফশিলি উ’পজাতি পরিবারে জ’ন্ম তার। বাবা ছিলেন একটি রা’ষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের অধিকর্তা। মা সংসার সা’মলাতেন।

তফশিলি হওয়ায় ছো’টবেলায় প্রতিবেশী, বন্ধুদের কাছে অনেক খা’রাপ কথা শুনেছেন নভজোৎ। তাই ছোট থেকেই স’রকারি উচ্চপদে চা’করি করার স্বপ্ন দেখতেন তিনি। পাঞ্জাবের একটি বে’স’রকারি স্কুল থেকে প’ড়াশোনা করেন তিনি।

About tanvir

Check Also

ভো’ট চা’ইতে গিয়ে গ;ণ’ধ;র্ষ;ণে;র শি’কার ম’হিলা প্রা’র্থী

প’টুয়াখালীর মি’র্জাগঞ্জে সংরক্ষিত এক না’রী কা’উ’ন্সিলর প্রার্থীকে (৪৫) গ;ণধ;র্ষ;ণের অ;ভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার (১৬ জানুয়ারি) …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *