অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ছড়ানোর হু’মকি স্বা’মীর, লজ্জায় স্ত্রীর আত্ম’হ’ত্যা

কুমিল্লার বুড়িচংয়ে স্বা’মী হয়ে স্ত্রীর অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরালের হু’মকিকে কেন্দ্র করে এক গৃহবধূ অ’পমানে আত্মহ’ত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার (১৩ মার্চ) সকালে ঘরের তিরের স’ঙ্গে ওড়না পেঁ’চিয়ে ওই গৃহবধূ আত্মহ’ত্যা করেন। নি’হতের নাম তাসলিমা (১৯) কুমিল্লার বুড়িচংয়ের মিথলমা গ্রামের দুলাল মিয়ার মে’য়ে। ৮ মাস আগে কুমিল্লা মহানগরীর মুরাদপুর এলাকার ফারুক মিয়ার ছেলে সুজন মিয়ার স’ঙ্গে তার বিয়ে হয়।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা যায়, সুজন মো’টা টাকা যৌ’তুকের জন্য তাসলিমা ও তার পরিবারকে চা’প দিতে থাকে। এর জেরে প্রায় দেড় মাস আগে তাসলিমা তার বাবার বাড়িতে চলে যান। তার আগে স্বা’মী সুজন স্ত্রীর স’ঙ্গে কিছু অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি মোবাইল ফোনে তুলে রেখেছিলেন। যৌ’তুকের টাকা না পেলে

তিনি ছবিগুলো বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হু’মকি দিতে থাকে। এই নিয়ে বেশ কিছুদিন যাবত সংসারে অশান্তি লেগেই ছিল।

এক পর্যায়ে স্বা’মী-স্ত্রীর বি’রোধ নিষ্পত্তিতে শুক্রবার (১২ মার্চ) দুলাল মিয়াসহ কয়েকজন গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সামনে উল্টো নিজের স্ত্রী’কে চরিত্রহীন বলে বলে অভিযোগ করেন স্বা’মী সুজন।

এ ছাড়া আগেই তুলে রাখা ছবি দেখিয়ে আর সংসার করবেন না বলে জানিয়ে দেন। বি’ষয়টি তাসলিমা জানতে পেরে অ’পমানে শনিবার সকালে ঘরের আড়ার স’ঙ্গে ওড়না পেঁ’চিয়ে আত্মহ’ত্যা করেন।

উক্ত ঘ’টনার বি’ষয়ে বুড়িচং থানার দেবপুর ফাঁড়ির এসআই কামাল বলেন, গৃহবধূর ম’রদে’হ উ’দ্ধার করে ম’য়নাত’দন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ম’র্গে পাঠানো হয়েছে।

প্রশ্নপত্র দেয়ার লোভ দেখিয়ে বহু ত’রুণীকে শ”য্যা”স”ঙ্গী করতেন রাফসান

নাম তার রা’ফসান চৌধুরী ওরফে তানভীর। ব’য়স ৩১। নিজে করতে পা’রেননি এসএসসি পাস, অথচ অন্যকে প্র’শ্নপত্র দেয়ার ও জিপিএ বাড়িয়ে দেয়ার কথা বলে হা’তিয়ে নিয়েছেন লাখ লাখ টাকা।

শুধু টাকা হাতিয়ে নি’য়েই ক্ষ্যন্ত হননি তিনি, প্রশ্নপত্র দেয়ার লোভ দেখিয়ে বহু ত’রুণীকে করেছেন শ”’য্যা’স”’ঙ্গী।অ’ভি’যো’গ পেয়ে এই প্র’তারককে গ্রে’’’প্তার গো’য়েন্দা পু’লি’শ (ডি’বি)। ধু’রন্ধর এই যু’ব’ক সা’মাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বি’জ্ঞাপন দিয়ে এমন প্র’তারণা করতো বলে জানিয়েছে পু’লি’শ।

ডি’বি বলছে, গ্রে’’’প্তারকৃত রাফসান এসএসসি, জেএসসি, এইচএসসি কিংবা মে’ডি’কেলের প্রশ্নপত্র দেয়ার লোভ দেখিয়ে অ’র্থ আ’দায় করতো।এরপর সুযোগ বুঝে ত’রুণী’দের সাথে ভালো সম্প’র্ক গড়ে তুলতো।

একসময় ভি’ডিও কলে অ’’শ্লী’ল ছবি ধারণ করে ব্ল্যা’কমেইলিং করতো তাদের। ভুয়া ফে’ইসবুক আইডি দিয়ে, বেশ কয়েকটি গ্রুপ তৈরি করে রাফসান। এরপর সেখানে দিতো বিজ্ঞা’পন। প্রশ্ন’পত্র ফাঁ’স, জিপিএ বাড়িয়ে দেয়া, প’রীক্ষার রেজাল্ট পাল্টিয়ে দেয়ার মত সব বি’ষয় ছিলো তার কাছে হা’তের মোয়া।

দে’শের প্রথম সারির শীর্ষে থাকা ১টি কলেজের এক শিক্ষা’র্থীকে তার ফাঁ’দে আট’কে ফে’লে। পরে ভিডিও কলে কথা বলে ধারণ করে তার অ’’শ্লী’ল ভিডিও। ব্ল্যা’ক’মেইলিং করতে শুরু করে সেই শিক্ষার্থীকে।

পু’লিশ বলছে, সাধারণ মানুষের নৈতি’কতার অবক্ষয়ের কারনে রাফ’সানের মতো প্র’তারকরা প্র’তারণা করার সুযোগ পাচ্ছে।প্র’তারণার পাশাপাশি রাফসান মা’দ’ক ব্যবসার স’ঙ্গে জ’ড়িত ছিলো। গ্রে’’’প্তারের সময় তার কাছ থেকে ৪০০ পিস ই’য়াবা জ’ব্দ করা হয়।

About tanvir

Check Also

ভো’ট চা’ইতে গিয়ে গ;ণ’ধ;র্ষ;ণে;র শি’কার ম’হিলা প্রা’র্থী

প’টুয়াখালীর মি’র্জাগঞ্জে সংরক্ষিত এক না’রী কা’উ’ন্সিলর প্রার্থীকে (৪৫) গ;ণধ;র্ষ;ণের অ;ভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার (১৬ জানুয়ারি) …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *